বিনোদন

যতদিন দম আছে, আমি এই খেলায় লড়ে যাব: পরীমণি

ছোটবেলাতেই হারিয়েছেন বাবা-মাকে, বড় হয়েছেন নানার কাছে। সিনেমা জগতে কোনও অভিভাবক ছিল না তাঁর, শুধুমাত্র অভিনয়কে ভালোবেসেই পা রেখেছিলেন সিনেমার জগতে। অল্প সময়ের মধ্যেই জনপ্রিয়তার শিখরে পৌঁছেছেন এই নায়িকা।

ঢালিউডে সাহসী নায়িকা হিসাবেই তিনি পরিচিত। তিনি দেশের সবচেয়ে চর্চিত নায়িকা পরীমণি। তবে শুধু পর্দায় নয়, বাস্তব জীবনেও তিনি সমান সাহসী। বুধবার সেই বার্তাই দিলেন নায়িকা। গত পয়লা সেপ্টেম্বর মা.দ.ক মামলায় জামিনে ছাড়া পান পরীমণি। সেই মামলাতেই আদালতে হাজিরা দেন তিনি। তবে তার মামলার চার্জশিট বুধবার জমা দেওয়ার কথা থাকলেও পুলিশের পক্ষ থেকে আদালতে তা জমা দেওয়া হয়নি।

এদিন আদালতে পরী তার জব্দ করা গাড়িসহ অন্যান্য জিনিসপত্র ফেরত চেয়ে আবেদন করেন। তিনি জানান, তার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে অনেক কিছুই নিয়ে গেছে ব়্যাব। গাড়ির কাগজপত্র থেকে শুরু করে তাঁর মোবাইল, আইপ্যাডও তাঁর কাছে নেই। আদালতে জমা দেওয়ার মতো কোনো কাগজপত্রই তাঁর নেই। এমনকি তাঁর গাড়িও তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। নিরাপত্তার কারণে এদিন আদালতে নিজের গাড়ি ফরত চান অভিনেতা।

বুধবার হাজিরা দিতে যাওয়ার সময় গাড়িতে থেকেই তিনি হাত তুলে ভক্তদের অভিবাদন জানান। তখনই দেখা যায় তার হাতের তালুতে লেখা নতুন বার্তা, মেহেন্দি দিয়ে মধ্যাঙ্গুলির ছবি এঁকেছেন তিনি, যাঁর নিচে লেখা ‘মি মোর’। মুহূর্তেই তাঁর এই বার্তা নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় উঠেছে। কাকে এই বার্তা দিলেন অভিনেত্রী।

এর উত্তরে পরীমণি সংবাদমাধ্যমকে জানান, ‘যারা আমার জীবন নিয়ে খেলতে চায় বা ঘাটতে আসে, তাদের সবাইকে আমি ওয়েলকাম করছি। আসো। ওয়েলকাম। আমি তোমাদের সঙ্গে এই খেলায় অংশ নিতে প্রস্তুত। দম যতদিন আছে, আমি শেষ অবধি এই খেলায় লড়ে যাবো।’

উল্লেখ্য, গত ৪ আগস্ট বনানীর বাসা থেকে পরীমণিকে আটক করে র‍্যাব। এরপর তার বিরুদ্ধে মা.দক.দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়। সেই মামলায় তিনি থানা ও কারাগার মিলিয়ে প্রায় মাস খানে হাজতে থাকতে হয় তাকে।

Related Articles

Close