জাতীয়

বন্ধু সিয়ামের মা ত্ব-হার আত্মগো’পনের বর্ণনা দিলেন

গত ১০ জুন রাত থেকে নি’খোঁজ ছিলেন আবু ত্ব-হা, তার দুই সঙ্গী আব্দুল মুহিত, মোহাম্ম’দ ফিরোজ ও গাড়িচালক আমির উদ্দিন। সেদিন বিকেল ৪টার দিকে ওই তিনজনসহ আবু ত্ব-হা রংপুর থেকে ভাড়া করা একটি গাড়িতে ঢাকার পথে রওনা দেন বলে দাবি করেন তার পরিবার।

গতকাল শুক্রবার আবু ত্ব-হা রংপুর প্রথম স্ত্রী’র বাড়ি থেকে উ’দ্ধার করা হয় তাকে। এরপর রংপুর ডিবি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, আবু ত্ব-হা মুহাম্ম’দ আদনান ব্যক্তিগত কারণে গাইবান্ধায় তার বন্ধুর বাসায় আত্মগো’পনে ছিলেন। ওই বাসাতে সিয়ামের মা একা থাকেন।

এরপর আলোচনায় আসে ত্রি-মোহনীর মৃ’ত শরীফ নেওয়াজ খানের বাড়ি। আজ সকালে সেখানে গিয়ে দেখা যায় ভিড়। আবু ত্ব-হা তার তিন সঙ্গী নিয়ে ওই বাড়িতে সাতদিন ছিলেন বলে জানান সিয়ামের মা নিশাত নাহার। এ সময় তিনি আবু ত্ব-হাসহ তার তিন সঙ্গীর আত্মগো’পনের বর্ণনা দেন।

নিশাত নাহার জানান, কয়েকবার তার ছে’লের বন্ধুত্বের সূত্র ধরে ত্ব-হা তার বাড়িতে আসে। এলাকার ম’সজিদে খুতবা পড়ান। মাহফিল করতেন। কিন্তু এবার সাতদিন তার বাড়িতে ত্ব-হাসহ বাকি তিনজনই নিঃশব্দে কা’টান।

তিনি আরো জানান, ত্ব-হা তাকে জানায়, কারা যেন তার ক্ষতি করার জন্য অনুসরণ করছে। তাকে তিনি ভীত সন্ত্রস্ত দেখেছেন। তারা এবার বাড়ির বাইরে যাননি। তার সঙ্গীদের মধ্যে ছিল আব্দুল মুকিত, মো. ফিরোজ ও গাড়ি চালক আমির উদ্দিন ফয়েজ। তিনি সঙ্গীদের নিয়ে ফোন বন্ধ করে ঘরেই কা’টান।

বন্ধু সিয়ামের মা নিশাত নাহার অরো জানান, তার বাবার বাড়ি রংপুরের শালবন। সেখানে রংপুর লায়ন স্কুল অ্যন্ড কলেজে মাধ্যমিক পর্যায়ে পড়ার সময় সিয়াম ও ত্ব-হার বন্ধুত্ব হয়। এখন সিয়াম রংপুরের একটি অটোমোবাইল কম্পানিতে কাজ করেন। তবে তাদের বন্ধুত্ব অটুট আছে। সেই কারণেই ত্ব-হা তার বাড়িতে আসতেন। এবার মিডিয়ায় খবর প্রচারের পর তিনি ত্ব-হাকে তার নিজের বাড়িতে চলে যেতে বলেন।

Related Articles

Close