খেলাধুলা

দিনভর আলোচনা শেষে নাসির-তামিমার বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন

সব আলোচনা-সমলোচনাকে পিছনে ফেলে বিয়ের সকল আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করলেন জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার নাসির হোসেন ও তার স্ত্রী তামিমা।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে রাজধানীর উত্তরার একটি রেস্তোরাঁয় স্বল্প পরিসরে আকদ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয় নাসির ও তামিমার। এরপর ২০ ফেব্রুয়ারি শনিবার রাতে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতাও শেষ করেছেন তারা।

তবে ২০ ফেব্রুয়ারি সারাদিনই আলোচনাতে ছিলেন নাসির ও তার সদ্য বিবাহিত স্ত্রী। তামিমা সুলতানা শবনম নামের যে নারীর সাথে তার বিয়ে হয়েছে তিনি নাকি ১১ বছরের সংসার ফেলে গাঁটছড়া বেঁধেছেন এই ক্রিকেটারের সাথে। এমনকি ডিভোর্সও দেননি পূর্বের স্বামীকে। সে ঘরে রয়েছে তার ৮ বছর বয়সী এক কন্যাও।

তামিমার পূর্বের স্বামীর নাম রাকিব হাসান। তাকে ডিভোর্স না দিয়ে আবারো বিয়ে করায় আইনগত পদক্ষেপ নিচ্ছেন তিনি। এই ইস্যু নিয়ে উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি জিডি করেছেন রাকিব।

স্ত্রীর এমন কর্মকাণ্ডে রাকিব বলেন, তার ৮ বছরের একটি মেয়ে আছে। এখনও আমাদের ডিভোর্স হয়নি। কোনো নোটিশ ছাড়া কীভাবে আমার স্ত্রী ৮ বছরের বাচ্চাকে ফেলে অন্য একজনকে বিয়ে করলো সেটাই আমি বুঝতে পারছি না।

২০১১ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি তিন লক্ষ টাকা দেনমোহরে তাদের বিয়ে হয়। রাকিবের দাবি, গেল ১১ বছরে তার স্ত্রীর পড়াশোনা থেকে শুরু করে জব সবক্ষেত্রেই তিনি সাহায্য করেছেন।

দিনভর আলোচনা-বিতর্ক শেষে রাতেই বিয়ের সকল আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করলেন নাসির ও তামিমা। ভক্তদের মাঝে এরই মধ্যে প্রশ্নের দেখা দিয়েছে নাসির-তামিমার সংসার জীবন এই বিতর্ক কাটিয়ে সুখী হবে তো?

Related Articles

Close